Information – The Greatest Marketing Weapon

Information – The Greatest Marketing Weapon

Marketing প্রতিটি কোম্পানীর প্রচার ও প্রসারের জন্য অনেক বড় একটি উপায়। এমন কোন কোম্পানী নেই যাদের কখনো কোন Marketing এর প্রয়োজন হয় না। এক কথায় বলতে গেলে Marketing ছাড়া কখনোই কোন কোম্পানী বড় কোন অবস্থানে পৌছাতে পারে না। এই Marketing এর জন্য বিভিন্ন কোম্পানী নানান রকম পন্থা অবলম্বন করে থাকে এবং এই পন্থাগুলোকে বাস্তবে রূপদান করে ঐ সকল কোম্পানীর Marketing Officerরা। একজন Marketing Officer এর নানান রকম দ্বায়িত্ব থাকে যার মধ্যে একটি অন্যতম দ্বায়িত্ব হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানীর সাথে Collaboration তৈরী করা। এটি অনেক গুরুত্বপুর্ণ একটি দ্বায়িত্ব যা মূলত দুটি কোম্পানীর সামনে অনেক গুলো Business Opportunity তৈরী করে দেয় পরস্পর সম্মিলিতভাবে কাজ করার।

One Company – Many Opportunities

একটি কোম্পানীর নানান রকম কাজের Area থাকে, অনেক রকম Department থাকে যেখানে বিভিন্ন ধরণের কাজ করার সুযোগ থাকে। ঐ কোম্পানীর একজন Marketing Officer এর অবশ্যই জানা থাকা উচিত এই সকল প্রকার কাজের ক্ষেত্র সমূহ সম্পর্কে কারণ তাকে অনেক রকম কোম্পানীর সাথে তার নিজ কোম্পানীর প্রতিনিধি হিসেবে Network স্থাপন করতে হয়। সেই সকল কোম্পানীর সাথে একটি Corporate Relationship তৈরীর মাধ্যমে দুটি কোম্পানীর মাঝে একটি যৌথ ভাবে কাজ করার পরিবেশ ও সুযোগ সৃষ্টি করতে হয়। আর এই কাজটি করতে গেলে একজন Marketing Officer এর প্রয়োজন সর্বদা চোখ কান খোলা রাখা ও নিজের উপস্থিত বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে যে কোন মুহূর্ত থেকে সুযোগকে খুঁজে বের করা। এই কথা বলার কারণ হচ্ছে মাঝে মাঝে দেখা যায় যে একজন Marketing Officer  যখন অন্য একটি কোম্পানীর সাথে কোন একটি নির্দিষ্ট কাজের প্রস্তাব নিয়ে একটি Collaboration তৈরী করতে গিয়ে দেখে সেখানে তাদের ঐ কাজটির কোন চাহিদা নেই বরং অন্য একটি Department এ কাজের চাহিদা রয়েছে যেখানে Joint Collaboration এর সুযোগ তৈরী সম্ভব, তখন ঐ Marketing Officer টির যদি তার নিজের কোম্পানীর সকল খুঁটিনাটি সম্পর্কে জানা থাকে তবে সে অনায়াসেই অন্য Alternative Department এর সাথে কথা বলে সেখানেই তার কাংক্ষিত Collaboration তৈরী করে নিতে পারে। 

Be Attentive & Find The Opportunity

একটি কোম্পানীতে নানান রকম কাজের চাহিদা বা সুযোগ থাকতে পারে যেমন, Product Supply Opportunity, HR Opportunity, Entrepreneurship Opportunity, IT System Opportunity, Branding Opportunity, Digital Marketing Opportunity, ISP Internet, Infrastructure Development, Event Management ইত্যাদী। সুতরাং যারা প্রকৃত বুদ্ধিমান ও Informative তারা খুব সহজেই যে কোন কোম্পানীতে গেলে কোথাও না কোথাও থেকে এই সুযোগ গুলোকে খুঁজে বের করে Joint Collaborative তৈরী করতে সক্ষম হবেই। আর আগেই বলেছি, এর জন্য অবশ্যই প্রয়োজন নিজের কোম্পানীর সকল প্রকার Department এর কাজ ও সার্ভিস সম্পর্কে A – Z অবগত থাকা। মূলত একজন Marketing Officer এর দ্বায়িত্ব হচ্ছে তার গোটা কোম্পানীর Marketing দ্বারা একটি লাভজনক Revenue নিয়ে আসা। তাই তাকে তার কোম্পানীর সকল প্রকার Department ও সেখানকার কর্মকর্তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত জানা থাকতে হবেই। মাঝে মাঝে এমন হয় যে একজন Marketing Officer কোন একটি কোম্পানীতে Event Management নিয়ে কথা বলতে গিয়ে দেখে সেখানে Event Management এর থেকে সেখানকার Product Supply তে কাজ করার বেশী ও লাভজনক সুযোগ রয়েছে। তখন যদি ঐ Officer এর তার নিজের কোম্পানীতে কিভাবে Product Supply এর সার্ভিস প্রদান করা হয়, কারা এই সার্ভিস গুলো প্রদান করে থাকে এই তথ্য গুলি জানা না থাকে তবে সে অনায়াসেই একটি সুবর্ণ সুযোগ হারিয়ে ফেলবে। এই সুযোগটি হচ্ছে তার নিজের কোম্পানীর সাথে ঐ বাহিরের কোম্পানীর একটি মোক্ষম Collaboration তৈরীর। আর এ কারণেই আমি আমার কোম্পানীর Digital Marketing নিয়ে কাজ করছি বলে আমি কোম্পানীর HR Opportunity বা HR Department সম্পর্কে কোন তথ্য রাখবো না, এমনটা ভাবা ভুল। আজকের এই আধুনিক বিশ্বকে হাতের মুঠোয় শাসন করার জন্য সব থেকে বড় হাতিয়ার হচ্ছে তথ্য। এ যুগে যার মাথায় যত বেশী তথ্য আছে, সে তত বেশী সুযোগকে নিজের হাতের মুঠোয় কয়েদ করার সক্ষমতা রাখে। সেই কারণে একজন Marketing Officer এর জন্যও যে কোন পরিস্থিতিকে জয় করার মূল অস্ত্র হচ্ছে তথ্য।

 An Effective Tool for Career Development

শুধু মাত্র Marketing Officer এর জন্যই নয়, বরং একটি কোম্পানীর সকল প্রকার Employee এর জন্য তার কোম্পানী তথা মার্কেটের অন্যান্য কোম্পানীর সম্পর্কে খুটিনাটি তথ্য জানাটা এখন অনেক বেশী গুরুত্বপুর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটি শুধু মাত্র তাদের কোম্পানীর স্বার্থেই নয় বরং তাদের নিজেদের Career Development এর জন্যই অনেকে বেশী সহায়ক ভূমিকা পালন করে। একজন Employee যত বেশী তথ্য জানবে সে তার কোম্পানীর পাশাপাশি তা নিজের জন্যও মার্কেট থেকে তত বেশী সুযোগকে খুঁজে বের করে নিজের Careerকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে। এই Corporate বিশ্বে সেই ব্যক্তিরই Demand সব থেকে বেশী যার সকল প্রকার Corporate Knowledge ও Experience বেশী। তাই নিজেকে নিজের কোম্পানীর পাশাপাশি অন্য যেকোন কোম্পানীর নিকট নিজেকে একটি Valuable Asset হিসেবে তুলে ধরতে তথ্যের কোন বিকল্প নেই। 

মোটকথা, তথ্য কখনো বিফলে যায় না। আজ নয় কাল সেটি কোন না কোন ভাবে কাজে লাগবেই। শুধু জানতে হবে কখন কিভাবে ও কোথায় সেই তথ্যটিকে কাজে লাগাতে হবে। আর এর জন্য নিজেদেরকে হতে হবে অনেক বেশী Smart ও Attentive। কারণ সৃষ্টিকর্তা প্রতিনিয়ত আমাদের চারপাশে অসংখ্য সুযোগের ব্যবস্থা করে দেন যা আমরা নিজেরাও জানি না। অবশেষে, যারা সর্বদা চোখ কান খোলা রাখে ও নিজেদের প্রতিটি মুহূর্তকে কাজে লাগায় তারাই একমাত্র সেই সকল অদৃশ্য সুযোগ গুলোকে দেখতে পায় ও সেগুলকে সঠিকভাবে ব্যবহারের মাধ্যমে পৌছে যায় সাফল্যের চূড়ায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *