Role of Marketing to Be an Entrepreneur

Role of Marketing to Be an Entrepreneur

 

আজকের এই আধুনিক বিশ্বে উদ্যোক্তা নামক বিষয়টি শুধু মাত্র বইয়ের পাতাতেই নয় বরং গোটা বিশ্ব বাজারে ছড়িয়ে পড়েছে। এ দেশে যেখানে চাকরীকে তুলনা করা সোনার হরিণের সাথে, যা পাবার জন্য একজন তরুণ Graduateকে প্রচুর পরিমাণে কাঠ খড় পোড়াতে হয়, সেখানে আশার কথা কথা হচ্ছে এখন অনেক তরুণরাই স্রোতের জোয়ারে গা ভাসিয়ে শুধু মাত্র চাকরী আশায় বসে না থেকে নিজে থেকে উদ্যোক্তা হয়ে জীবনে কিছু করার স্বপ্ন দেখছে। তবে স্বপ্ন অনেকেই দেখলেও তা পুরণ কিন্তু সকলে করতে পারছে না কারণ ব্যবসা সহজ কোন বিষয় নয় যে চাইলেই এতে নেমে পড়া যায়। এর জন্য প্রয়োজন দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা, পরিশ্রম, Market Knowledge, Product Knowledge ও Customer Knowledge। আর এই বিষয়গুলি কখনো রাতারাতি শিখে ফেলা যায় না, বিশেষ করে হঠাৎ করে ব্যবসায় নেমে পড়ে তো নয়ই। আর এই কারণেই অনেকেই উদ্যোক্তা হবার স্বপ্ন দেখে তাদের যাত্রা শুরু করলেও এই বিষয় গুলোর অভাবে তারা তাদের লক্ষ্যে পৌছাতে পারে না।

উদ্যোক্তা হবার পূর্ব শর্ত

এখন প্রশ্ন হচ্ছে তাহলে উদ্যোক্তা হবার আগে এই বিষয়গুলি কিভাবে শেখা সম্ভব ? উত্তর হচ্ছে Marketing। আমরা জানি যে Marketing হচ্ছে এমন একটি পেশা যেখানে সরাসরি Market এ কাজ করার সুযোগ থাকে। যখন একজন ছেলে বা মেয়ে দীর্ঘদিন ধরে Market এ কাজ করতে থাকে তখন সে খুব কাছ থেকে প্রতিটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাথে মিশতে পারে। এভাবে তাদের মধ্যে একটি কার্যকরী Network তৈরী হয়। আর এই Network তৈরীর মাধ্যমে সেই সকল প্রতিষ্ঠানের Policy, রীতি-নীতি, Strategy সম্পর্কে তার এর একটি পুর্নাংগ ধারণা হয়ে যায়। সেই সকল প্রতিষ্ঠানের Product সম্পর্কিত যাবতীয় ধারণাও লাভ করতে পারে সে। পাশাপাশি বর্তমান বাজারে, Share Market এ, Corporate Competition এ ঐ প্রতিষ্ঠানের অবস্থান, মূল্য এবং ঐ প্রতিষ্ঠানের পণ্যের গূণগত মান ও বাজার চাহিদা কতখানি সে সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য লাভ করতে সক্ষম হয় সে। আর এই তথ্য গুলোকে সে খুব সহজেই নিজের Career এ কাজে লাগাতে পারে।

তথ্যই সম্পদ

আমরা জানি বর্তমান বিশ্বে তথ্যের থেকে বড় সম্পদ ও হাতিয়ার আর কিছুই নেই। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানই চায় তাদের Marketing Officerরা Market Analysis এ দক্ষ হয় ও সেই সাথে তাদের প্রতিটি Client এর চাহিদা, সুবিধা, অসুবিধা, দুর্বলতা সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা রাখে। অর্থাৎ একজন Marketing Officer কে তার Client বা Target Company এর Psychology জানতে হয়। তাকে বাজারে Customer এর চাহিদা, তাদের নির্ভরশীলতা, পণ্যের সহজলভ্যতা, পণ্যের মুল্য সব কিছুও জানতে ও বুঝতে হয়। এই পূর্নাংগ জ্ঞান ও তথ্য গুলো দ্বারা সে খুব সহজেই বুঝতে পারে কিভাবে সে তার Client ও Customerদের চাহিদা ও Value অনুযায়ী নিজেদের পণ্যকে Develop করে সেগুলো সফল ভাবে বিক্রয় করতে পারবে। আর এভাবে কাজ করতে করতে সে যখন Customer Psychology Analysis, Market Analysis ও Product Analysis করার দক্ষতা গুলো অর্জন করে তখন এই দক্ষতাগুলিই তার সারা জীবনের জন্য একটি সম্পদে পরিণত হয়। এই Skill গুলো দ্বারা একজন ব্যক্তি নিজেকে এমন ভাবে Develop করে নিতে পারে, যার ফলে সে যে কোন পরিস্থিতিতে, যে কোন পরিবেশ ও যে কোন মানুষের Psychology বুঝে খুব সহজেই কাজ করতে পারে। 

Career গঠণের অপার সম্ভাবনা

একজন Marketing Officerএর যখন এ ধরণের Market, Product ও Customer সম্পর্কে পূর্ণাংগ Research ও Skill অর্জন হয়ে যায় তখন সে Marketing পেশাতে থাকুক বা অন্য পেশায় Career Switch করুক, সে খুব সহজেই একটি সফল অবস্থানে পৌছাতে পারে কারণ ততদিনে গোটা Market, Buyer ও Customerদের সম্পর্কে সে বিস্তারিতভাবে অবগত। আর এ কারণেই এই পেশায় কর্মরত কর্মীদের সামনে আরো অনেক রকম Career Opportunity এর দরজা খুলে যায় যার মধ্যে একটি অন্যতম হচ্ছে Entrepreneurship। যারা Marketing এর কাজ করে তাদের মধ্যে একজন উদ্যোক্তা হবার মত প্রায় সকল ধরণের Skill গড়ে ওঠে যার ফলে তার জন্য পরিবর্তিতে একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার পথটা অনেক সহজ হয়ে যায়। 

উদ্যোক্তা হবার গুণাবলি

উদ্যোক্তা হতে হলে প্রতিটি ছেলে-মেয়েরই কিছু গুণাবলি থাকাটা অত্যান্ত জরুরী যেমন নেতৃত্ববোধ, দ্বায়িত্বশীলতা, কঠোর পরিশ্রম, ব্যবসা পরিকল্পনা, Out of the Box Thinking, Innovation ইত্যাদী। এই গুণাবলী গুলো শুধু মাত্র প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা দ্বারা কিংবা ঘরে বসে অর্জন সম্ভব নয়। এগুলো অর্জনের জন্য মাঠে নামাটা জরুরী, বাস্তবতাকে মোকাবিলা করার অভিজ্ঞতা অর্জন করাটা জরুরী। আর এই সব কিছু সম্ভব Marketing এর মাধ্যমে। Marketing এর মাধ্যমে অর্জিত সকল প্রকার Market Analysis, Business Analysis, Customer Psychological Analysis, Customer Need, Communication Skill ইত্যাদী সকল প্রকার জ্ঞান একজন সফল উদ্যোক্তা হবার জন্য অনিবার্য উপাদান। 

তরুণ প্রজন্মের Marketing এ অনিহা

আর এই কারণেই যাদের আগে থেকে Marketing তথা Real Field এ কাজ করার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা আছে তাদের জন্য উদ্যোক্তা হবার পথে যে সকল প্রতিবন্ধকতা আছে সেগুলোকে তারা অনায়াসেই অতিক্রম করতে পারে। যার ফলে দেখা যায় যে এ সকল ছেলে-মেয়েরা সহজে কখনো তাদের লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত হয় না এবং নিজেদেরকে সফল উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হয়। সুতরাং এ থেকে পরিষ্কার বোঝা যায় যে Marketing পেশার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয় কতটা অপরিসীম। কিন্তু সেই সাথে এটি দুঃখেরও ব্যাপার যে এই কষ্টকর কাজটি কেউ সহজে করতে চায় না। উদ্যোক্তা হবার স্বপ্ন অনেকেই দেখে কিন্তু Marketing এ কাজ করতে বেশীর ভাগ শিক্ষার্থীদেরই অনিহা। সবাই চায় AC এর নিচে বসে একটি আরামদায়ক Desk Job করতে আর এই কারণেই সকলে একই ধরণের চাকরী তথা সোনার হরিণের পিছনে ছোটার কারণে আজ দেশে বেকারত্বের পরিমাণ এত বেশী। আবার যারা স্রোতের ভিন্ন পথে চলে নিজেকে উদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায় তারাও জানে না Marketing এর গুরুত্ব। অথচ Marketing ও Entrepreneurship দুটিই কিন্তু একই সুত্রে বাধা। Marketing ছাড়া কখনো উদ্যোক্তা হওয়া সম্ভব নয়। একজন সফল উদ্যোক্তাকে অবশ্যই Marketing জানতে হবেই না হলে সে কখনই নিজের ব্যবসার প্রচার ও প্রসার ঘটাতে পারবে না। শুধু মাত্র Entrepreneurshipই নয়, Marketing এ যারা কাজ করে এসেছে তারা যে কোন কোম্পানীতে চাকরী করেও নিজেদের সফল Career গড়তে সক্ষম হয়।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোই উদ্যোক্তা তৈরী কারিগর

অতঃপর এখনই সময় এই বিষয়টির গুরুত্ব সম্পর্কে দেশের সকল শিক্ষার্থীদেরকে সঠিক জ্ঞান ও Guideline প্রদান করার। আর এর জন্য এগিয়ে আসতে হবে সকল স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়কে। শিক্ষকদেরকে তাদের শিক্ষার্থীদের কেতাবী বিদ্যার বাহিরে Real Field এ কাজ করিয়ে তাদেরকে বাস্তবতার সাথে পরিচিত করতে হবে ও ভবিষ্যতের সকল প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করার জন্য তাদেরকে প্রস্তুত করতে হবে। আর এই পদ্ধতিকে বাস্তবায়ন করতে ব্যবহারিক শিক্ষাকে পাঠ্যসূচীর অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। ইতঃমধ্যে বহিঃবিশ্বের অন্যান্য উন্নত দেশ গুলোতে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত Career Development এর জন্য এই চর্চা করা হয়ে থাকে। আমাদের দেশের স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে এই পদ্ধতি শুরু করা মাধ্যমে আমরা ভবিষ্যতের জন্য সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তা তৈরী করতে পারি। আর শিক্ষাজীবন থেকেই যদি শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে Market এ কাজ করার জন্য প্রস্তুত করে নিতে পারে তবে পড়াশোনা শেষে Job Field এ যাবার পর তাদের চাকরী পেতে বা সফল উদ্যোক্তা হতে কোন বেগ পেতে হবে না। 

শেষ কথা

অবশেষে, Marketing হচ্ছে এমন একটি পেশা যার চাহিদা গোটা বিশ্বের সকল প্রকার পেশাতেই যুগ যুগ ধরে ছিল, আছে এবং আজীবন থাকবে। এই পেশার মত অপার সম্ভাবনা আর কোন পেশাতেই নেই। এই পেশায় কাজ করে অর্জন করা যায় না এমন কোনই Skill নেই। আর উদ্যোক্তা হবার মূলমন্ত্র হিসেবে এই পেশার পরিচয় তো আছেই। আজ বিশ্বের যে সকল প্রতিষ্ঠিত উদ্যোক্তারা আছে সকলেই তাদের Career শুরু করেছে Marketing পেশার মাধ্যমে যা সকল শিক্ষার্থীদের জন্য দৃষ্টান্ত স্বরুপ। আর এ কারণেই নিঃসন্দেহে যারা তাদের জীবনে সফল উদ্যোক্তা হতে চায় অথবা একটি সফল Career গড়তে চায় তাদের জন্য Marketing হচ্ছে তাদের লক্ষ্যে পৌছানোর যুগান্তকারী একটি পথ। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *